আর্টসেল : Tag

এই বৃষ্টি ভেজা রাতে

এই বৃষ্টি ভেজা রাতে তুমি নেই বলে সময় আমার কাটেনা চাঁদ কেনো আলো দেয়না পাখি কেন গান গায় না তারা কেন পথ দেখায় না তুমি কেন কাছে আসোনা সমুদ্রের ঝড়ো হাওয়া বলে তারা তোমাকে চায় তারা তোমাকে চায় পাখি নির্ঘুম কন্ঠে বলে তারা তোমাকে চায় তারা তোমাকে চায় শরতের প্রভায় তুমি নেই বলে...

নোনা স্বপ্নে গড়া (ধূসর সময়)

নোনা স্বপ্নে গড়া তোমার স্মৃতি শত রঙে রাঙিয়ে মিথ্যে কোনো স্পন্দনে আলোর নিচে যে আঁধার খেলা করে সে আঁধারে শরীর মেশালে…হে… আজ আমি ধূসর কি রঙিন সময়ে পথে হারাই তোমাতে জীবনের কাঁটা তারে তুমি অন্তহীনের অপূর্ণতায় বেওয়ারিশ ঘুড়ি উড়ে যাও অনাবিল আকাশের শূণ্যতায় তবু...

মুখোশে আমায় যেমন দেখো

মুখোশে আমায় যেমন দেখো পরিচ্ছন্ন তোমার মত মুখোশে আমার শরীর ঢাকা তোমার চোখেও মুখোশ আঁকা যতই মিথ্যের দেয়াল গড়ি তোমার আমার চারিপাশে নিজের আয়নায় মুখোশ বিহীন পরে থাকি গল্প শেষে আমি জানালার ভেতরে বাহিরে দুজন দেয়াল এর কাছাকাছি যাই দেয়ালে বাঁধা সস্তা জীবন নিজের আয়নায় একলা...

আমার পথ চলা আমার পথে

আমার পথ চলা আমার পথে যেন বেলা শেষে আকাশ কার মোহে আমার স্বপ্ন আমার সাথে যেন স্বপ্নে ফেরে আসে স্বপ্ন হয়ে খুজে পায় জীবনের তীর, জীবনকে কোন স্বপ্ন ভেবে আমি কার আশাতে ছুটে চলি পথে পথে যেন কার মায়াতে বাধা পড়েছে জীবন যে কত সুর কল্পনা, কত মিথ্যে প্রলোভন কষ্টের প্রতিটি ক্ষণ...

অবশ অনুভূতির দেয়াল

তোমার জন্য পৃথিবী আজ নিয়েছে বিদায় তবু তোমার টুকরো ছায়ায় ডুবে আছে কত মিথ্যে আগুন অন্ধকারময় কত স্মৃতি কত সময় তোমার জন্য পৃথিবীতে আজকে ছুটির রোদ নিজের মাঝে তোমায় খোঁজা আকাশ নীলে তাকিয়ে থাকা তোমার জন্য পৃথিবী আজ নিয়েছে বিদায় মেঘাচ্ছন্ন ব্যস্ত ঢাকায় মানুষগুলো শূন্য চোখে...

অপ্সরী

আমি কার ভুলে ছিলাম ভুলে এক রক্ত মাংসের অপ্সরী খুঁজে ফিরে অপূর্নতায় পূর্নতা জীবনের সাথে লুকোচুরি মনে পড়ে তুমি ছিলে পাশে এখনও যেভাবে আছো জড়িয়ে তবু নিরবে তোমায় স্মৃতিচারণ সমস্ত অস্তিত্ব জুড়ে তুমি এলে উৎসবে সাজবে নতুন আকাশ বাম পাশে ভাসবে অজানা অবাক উল্লাস তোমার ভেতর জন্ম...

অদেখা স্বর্গ

এই ঘরে ফেরা নিজেকে ফিরে দেখা আয়নাতে কার মায়া আঁধারের আলো ছায়া আমার সাথে চলে তোমাকে নিয়ে একা অজানা যে আকাশে ওড়ে অদেখা কোন স্বর্গ আমার না পাওয়া তবু পথ দেখায় আশাতে হতাশা ভোলায় যতবার জন্মেছি তোমারই আশাতে ততবার আবার এই ফিরে চলা দুর থেকে দেখা আমার এ ভালোবাসা অজানা যে আকাশে...

উৎসবের উৎসাহে

আমার অবারিত দরজা জুড়ে সম্ভাবনার রঙিন মলাট আমার শরীর ডুবে আছে অবিরাম মৃত উষ্ণতায় তুমি যে রোদ মাখবে বলে মেতে উঠেছো রঙের উৎসবে আমার বিষাদ ছায়া হয়ে ঢেকে দেয় তোমায় জানবে আমি শুধু আমি নই আমি মানে অন্য কেউ কিংবা প্রতিবিম্ব তোমাতে মিলিয়ে আমার সব সুর তোমারই সঙ্গপনে তোমারই...

পথচলা

আমার পথ চলা আমার পথে যেন বেলা শেষে আকাশ কার মোহে আমার স্বপ্ন আমার সাথে যেন স্বপ্নে ফিরে আসে স্বপ্ন হয়ে খুঁজে পায় জীবনের তীর জীবনকে কোন স্বপ্ন ভেবে আমি কার আশাতে ছুটে চলি পথে পথে যেন কার মায়াতে বাধা পড়েছে জীবন যে কত সুখ কল্পনা কত মিথ্যে প্রলভন কষ্টের প্রতিটিক্ষন শোনায়...

দুঃখবিলাস

তোমরা কেউ কি দিতে পারো প্রেমিকার ভালোবাসা দেবে কি কেউ জীবনে উষ্ণতার সত্য আশা ভালোবাসার আগে নিজেকে নিও বাঁচিয়ে আমার মনের মত নিও সাজিয়ে আমি বড় অসহায় অন্যপথে একটি নাটকই দেখি মহ্কালের মঞ্চে ও আমায় ভালোবাসেনি অসীম এ ভালোবাসা ও বোঝেনি ও আমায় ভালোবাসেনি অতল এ ভালোবাসা তলিয়ে...