শিরোনামহীন : Tag

কিছুটা জেনে কিছুটা না জেনে (ট্রেন)

কিছুটা জেনে কিছুটা না জেনে আঁধার নামা পুরনো শহরে প্ল্যাটফর্ম ছুয়ে ক্লান্ত দেহে অভিমানী পদচিহ্ন রাখে অভিমানী এক ট্রেনে করিডর ধরে হেঁটে যায় একা একা স্বপ্ন অচেনা জানালার বুকে চোখ জুড়ে সুদূরের আনন্দনগর ধীরে ধীরে ভেসে যায় চোখে শেষ প্রিয়মুখ তবু যদি থেমে যায় সব কল্পনা ছুঁয়ে...

ব্যস্ত দিনের শেষে (মুঠোফোন)

ব্যস্ত দিনের শেষে তোমার প্রিয় মুখ। তোমার ভাবনা শব্দময় যখন, আশ্রয় আমার রাজ্যের ব্যস্ততা। নিয়ন আলোয় স্বাগতম, মুঠোফোন। একে একে সব, তোমার কলরব, তোমার কন্ঠ শব্দময় যখন, ভাবনার রাস্তায় সবুজ সিগনাল জ্বেলে সংকেত। আশ্বাস চাই অজস্র সংলাপ যখন তখন, ভালোবাসায় আজ শব্দের নিঃশ্বাসে...

ছেলেবেলায় (প্রান্তর)

ছেলেবেলায় ফেলে আসা দীর্ঘশ্বাস অকারণে কথা বলা আমার পথচলা সেই কবেকার হারিয়ে যাওয়া ঘুড়ি সূতোয় ছন্দমাখা ছেলেবেলা দেখি এ খোলা প্রান্তরে স্বপ্ন আমারই ভেসে যায় দু’চোখে স্বপ্ন দেখার একদিন স্মৃতির মিছিল নিয়ে এই অবেলায় গল্প বলার কোনদিন পুরনো সংলাপে অনেক অজানায় ছেলেবেলায় ফেলে...

মেঘ ঝড়ে ঝড়ে বৃষ্টি নামে (ভালোবাসা মেঘ)

মেঘ ঝড়ে ঝড়ে বৃষ্টি নামে বৃষ্টির নাম জল হয়ে যায়, জল উড়ে উড়ে আকাশের গায়ে ভালবাসা নিয়ে বৃষ্টি সাজায়। ইচ্ছে গুলো ভবঘুরে হয়ে চেনা অচেনা হিসেব মেলায়, ভালবাসা তাই ভিজে একাকার ভেজা মন থাকে রোদের আশায়। ইচ্ছে হলে ভালবাসিস না হয় থাকিস যেমন থাকে স্নিগ্ধ গাংচিল। চুপি চুপি রোদ,...

নিয়ন আলোর রাজপথে (বুলেট কিংবা কবিতা)

নিয়ন আলোর রাজপথে টিএসসির মোড়ে চায়ের দোকানে বুলেট কিংবা কবিতায়, যদি ফেরার পথে ভুল হয়ে যায়… মাঝে মাঝে সবুজ পতাকা, দু’হাতের মাঝে বন্দী অজস্র কবিতায় আর গানে, জ্বলে জ্বলে নিঃশেষ কবি আর কবিতা রাজপথ ছুঁয়ে যায় কতশত কবি এমনই এক টিএসসির মোড়ে প্রতিরাতের উদাস চাঁদ দেয়াল...

অচিন পাখি দিল ফাঁকি (সূর্য)

অচিন পাখি দিল ফাঁকি, উদাস বাউল কাকে ডাকি জলের মাঝে জীবনগুলো, তেপান্তরের পাথর ধুলো সাগর তীরের জীবন দেয়াল, সূর্যটাকে রাখিস খেয়াল গাছের চূড়ায় নতুন শহর, নদী পানি ফুলের বহর সময় কাঁটা আতশবাজি, কাঁটাতারে বৃক্ষরাজি স্বপ্ন দহণ পূণ্য না সয় সত্যবচন ধর্মে না রয় কথার মাঝে নোনা...

রাত্রি ক্লান্ত জীর্ন শীর্ন আঁধো চাঁদের আলো (একা)

রাত্রি ক্লান্ত জীর্ন শীর্ন আঁধো চাঁদের আলো পিচ ঢালা পথ কখনো ধূসর কখনও বা কালো সারাটা পথ জুড়ে আমি একা হেটে যাই আকাশ তারার পানে চেয়ে নীল জোছনায় স্মৃতিরো ভীড়ে হারিয়ে যায় মন আধারে। আধাঁর রাতে নেমে আসে শিশিরের ছায়া নিভে গেছে দূর কোন স্মৃতিরও মায়া নিঃসীম চারপাশ কোনো সাড়া...

মনে পড়ে পড়ে না (সহসা দ্বীপ)

মনে পড়ে পড়ে না সহসা চলে যাই, উদাস স্মৃতির কাব্য ছুঁয়ে, ছুটে চলা, অবাক জল রাশির সীমানায় সহসা দ্বীপ ধুলোর মিছিলে, মেঘ ঘন বিকেলে ক্লান্তি সরিয়ে দেখি, সে কি বিষ্ময়ে, মনে পড়ে ? ধুলোর মিছিলে নিঃশ্চুপ বিকেলে বৃষ্টি নামবে বুঝি দিগন্ত ছাড়িয়, মনে পড়ে ? অবাক জলধারার সেই সহসা...

নার্সারি ছাড়িয়ে, চৌরাস্তার মোড়ে (বাস স্টপেজ)

নার্সারি ছাড়িয়ে, চৌরাস্তার মোড়ে বাস স্টপেজ- ফুলস্টপ হয়ে দাঁড়িয়ে বুকে জমা পোষ্টার- আর্ট গ্যালারির মতো উদাসীন বখাটে কারো সেল নাম্বার- বিজ্ঞাপন হয়ে বিব্রত কড়া পারফিউম অযথা সুবাস বাতাসে ক্লান্তিহীন ছুটছে কিছু বিরতিহীন বাস চকচকে পিচে বেরসিক বৃষ্টি নাম লিখে গেছে সন্ধানী...

একদিন হাঁটছি আমরা ক’জন (সুপ্রভাত)

একদিন হাঁটছি আমরা ক’জন আমাদের কেউ কেউ উচ্ছাসে, এই শুভ্র সকালে ধুলোমাখা পথঘাট, ধুলোমাখা শরীর ধুলোয় ধূসর আমরা ক’জন এই সকালে, রাস্তায় হাঁটছি সুপ্রভাত একদিন আমাদের – দ্বিধাহীন ভোর আসে, ফুটপাতে ধুলোময় দোকানে খবরের কাগজে খেয়ালী কোলাহলে জমে ওঠে শহরের রাজপথে যান্রিক কোন...

বন্ধ জানালা (আরেকবার যেতে চাই)

আরেকবার যেতে চাই রিম ঝিম ঝিম সুদূরপুর অবাক রোদ ভেজা তপ্ত দুপুর আরেকবার তোমাদের লাল, নীল রঙ আনন্দে একলা রাস্তায় এক চিলতে রোদ্দুর। সারাবেলা বন্ধ জানালা… যদি তোমাদের অনেক শব্দ, আমার জানালায় ছোট ছোট আনন্দের স্পর্শে, আঙ্গুল রেখে যায় যদি সহস্র শব্দের উৎসব থেকে যায়...

গোধূলী

দিগন্ত জুড়ে নিলীমার মাঝে পলাতক সময় করে পরিহাস স্তব্ধ নিঃশ্বাস দুরে ঠেলে আসি আমি ফিরে বারেবার ছুঁয়ে যাই আবারও হারাই একই আকাশের গোধূলী অনন্ত পতন অনন্ত সময় একই ভাঙ্গনের কথা একই পথ আমারই জন্যে সহস্র সূর্য দেবে একই আলো চিরকাল ছুঁয়ে যাই আবারও হারাই একই আকাশের গোধূলী আমি...

হাসিমুখ

প্রতিটি রাস্তায় প্রতিটি জানালায় হাসিমুখ হাসিমুখে আনন্দধারা তুমি চেয়ে আছো তাই আমি পথে হেটে যাই হেটে হেটে বহুদুর বহুদুর যেতে চাই রোদ উঠে গেছে তোমাদের নগরীতে আলো এসে থেমে গেছে তোমাদের জানালায় আনন্দ হাসি মুখ চেনা চেনা সবখানে এরই মাঝে চলো মোরা হারিয়ে যাই তুমি চেয়ে আছো তাই...